০৪ এপ্রিল ২০২০ ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

০৪ এপ্রিল ২০২০ ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

আলোচিত ডেস্ক

মার্চ ২৪, ২০২০
১২:৫৪ অপরাহ্ন

সিলেটে আইসোলেশন সেন্টারে নেই আইসিইউ সুবিধা


নন্দিত সিলেট:পৃথিবীজুড়ে একপ্রকার তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯। ইউরোপ-আমেরিকাতে প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। বাংলাদেশও মুক্ত নয় করোনার থাবা থেকে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশে ৩৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত হিসেবে সনাক্ত হয়েছেন। এরমধ্যে মারা গেছেন ৩ জন। পৃথিবীজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অনেক রোগীকে নিতে হচ্ছে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র (আইসিইউ)-তে। তবে সিলেটে আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে ঘোষণা করা শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে নেই আইসিইউ ইউনিট। যদিও প্রবাসী অধ্যুষিত হওয়ায় সিলেটকে করোনা সংক্রমণের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। রোববারই করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক প্রবাসী নারী মারা গেছেন। এছাড়া সিলেটের অনেক হাসপাতালেই চিকিৎসক-নার্সদের জন্য নেই পর্যাপ্ত পিপিই (পার্সোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট)। করোনাভাইরাস সনাক্তের ব্যবস্থাও নেই এখানে। সন্দেহভাজন কেউ ভর্তি হলে ঢাকায় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট (আইইডিসিআর)-এর অপেক্ষায়ই থাকতে হয় রোগী ও চিকিৎসকদের। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য সিলেট নগরীর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালকে আইসোলেশন ইউনিট হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া প্রস্তুত রাখা হয়েছে সিলেট বক্ষব্যাধি হাসপাতাল ও শাহপরান (র.) হাসপাতালকে। এই হাসপাতালগুলোর কোথাও নেই আইসিইউ সুবিধা। তাই আক্রান্ত রোগীর অবস্থার অবনতি হলে বিপাকে পড়তে হবে চিকিৎসকদের। তবে এসব সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও প্রস্তুতি পর্যাপ্তই বলছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম। আর সিভিল সার্জন বলছেন, আইসিইউর প্রয়োজন দেখা দিলে ব্যবস্থা করা হবে।