১৫ অগাস্ট ২০২০ ০৪:১৮ অপরাহ্ন

১৫ অগাস্ট ২০২০ ০৪:১৮ অপরাহ্ন

ছাতক প্রতিনিধি

জুলাই ২৬, ২০২০
৮:০৮ অপরাহ্ন


ছাতকে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, স্বামী পলাতক


ছাতকে শিপা বেগম (২৫) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু ঘটেছে। গত ২২ জুলাই নিজ বাড়ীর বসতঘরের তীরের সাথে গলায় ওড়না পেছিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে বলে স্বামীর বাড়ির লোকজন দাবি করলেও শিপা বেগমের পিত্রালয় থেকে পাওয়া গেছে ভিন্ন খবর। এ নিয়ে চলছে এলাকায় তোলপাড়। পুলিশ ঘটনার দিন লাশ উদ্ধার করেছে। শিপা বেগম নোয়ারাই ইউনিয়নের কটালপুর গ্রামের মাঈনুল ইসলামের স্ত্রী ও একই গ্রামের তাজুল ইসলামের কন্যা। ৬ মাস আগে গ্রামের নূরুল ইসলামের পুত্র মাঈনুল ইসলামের সাথে শিপা বেগমের বিবাহ হয়েছে। ঘটনার দিন খবর পেয়ে থানা পুলিশ বিকালে শিপা বেগমের লাশ উদ্ধার করেছে। ছাতক থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোহাম্মদ মঈন জানান, মেঝেতে পড়ে থাকা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা রুজু করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। শিপা বেগমের পিত্রালয়ের লোকজন দাবি করেছেন পরিকল্পিতভাবে শিপাকে হত্যা করে লাশ ঝুঁলিয়ে রাখা হয়েছিলো এবং পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই ঝুঁলন্ত লাশ মেঝেতে রাখা হয়েছে। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক নিয়ে স্বামী-স্ত্রী'র মধ্যে বিরোধ চলমান ছিলো। গ্রামের কয়েকজন লোক জানান, তাদের বিষয় নিয়ে একাধিক সালিশ বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়েছে। শিপা বেগমের পিতার বাড়ির লোকজন তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে পত্রিকা ও বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে বক্তব্য দিয়েছেন। এদিকে মাঈনুল ইসলাম সহ স্বামীর বাড়ির লোকজন লাশ দাফনের পর থেকেই পলাতক রয়েছেন।