১৫ অগাস্ট ২০২০ ০৪:০৭ অপরাহ্ন

১৫ অগাস্ট ২০২০ ০৪:০৭ অপরাহ্ন

নন্দিত সিলেট

জুলাই ৩০, ২০২০
১০:৫০ অপরাহ্ন


পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় ফের চালু হচ্ছে লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট


পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের প্রচেষ্টায় ফের চালু হতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট। কোভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট না থাকা যাত্রীদের জন্য সিলেটে আইসোলেশনেরও ব্যবস্থা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সভাপতিত্বে আন্ত:মন্ত্রণালয়ের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের ফলে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিলেটীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। করোনা পরিস্থিতির আগে লন্ডন থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্সের সরাসরি ফ্লাইট এসে নামতো সিলেটে। সিলেটের যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে বাকি যাত্রীদের নিয়ে ফ্লাইট যেতো ঢাকায়। কিন্তু করোনা সংকটে গত প্রায় তিনমাস বন্ধ থাকার পর পুণরায় ফ্লাইট চালু হলে বাতিল হয়ে যায় লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট। সিলেটের যাত্রীরা প্রথমে ঢাকায় নামিয়ে পরে পাঠানো হতে সিলেটে। সম্প্রতি বিমানের পক্ষ থেকে সিলেটের যাত্রীদের ঢাকায় ইমিগ্রেশন করে লাগেজ সংগ্রহের নির্দেশনা দেওয়া হয়। করোনা পরিস্থিতি ও সিলেটে আইসোলেশন সেন্টার না থাকার অজুহাত দেখিয়ে বিমান এই সিদ্ধান্তের কথা জানায়। এতে যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিলেটীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। বিমানের এই সিদ্ধান্ত বাতিল করে লন্ডন-সিলেট ফ্লাইট চালুর দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেন। সিলেটেও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। যুক্তরাজ্য প্রবাসী ও সিলেটের বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে লন্ডন-সিলেট ফ্লাইট চালুর দাবি জানানো হয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের কাছে। এই দাবির প্রেক্ষিতে গতকাল বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সভাপতিত্বে আন্ত:মন্ত্রণালয়ের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ফের লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত হয়। এই সিদ্ধান্তের পর যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিলেটীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিলেটের বিশ^নাথের বাসিন্দা আঙ্গুর মিয়া মুঠোফোনে জানান, আগামী মাসে তিনি সপরিবারে দেশে আসতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সিলেটের সাথে সরাসরি ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এবং ঢাকায় ইমিগ্রেশনের সিদ্ধান্ত হওয়ায় তিনি দেশে ফেরার চিন্তা বাদ দিয়েছিলেন। এখন নতুন করে লন্ডন-সিলেট ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত হওয়ায় তিনি দেশে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আটাব সিলেট অঞ্চলের সাবেক সভাপতি আবদুল জব্বার জলিল জানান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের ঐকান্তিক চেষ্টায় লন্ডন-সিলেট সরাসরি ফ্লাইট পুণরায় চালু হতে যাচ্ছে। বিমান যাত্রীদের মধ্যে যাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের প্রয়োজন পড়বে তাদের জন্য হোটেল দেখারও কাজ চলছে। এ ব্যাপারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন সিলেটভিউকে বলেন, ‘সিলেটে সরাসরি ফ্লাইটের জন্য বিমান প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারিন্টেনের ব্যবস্থা চেয়েছিল, আমরা তা করেছি। এখন লন্ডন থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে যাদের কোভিড-১৯ নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকবে তারা ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন। আর যাদের সাথে এই সার্টিফিকেট থাকবে না তারা ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।