৩১ অক্টোবর ২০২০ ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

৩১ অক্টোবর ২০২০ ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২০
৯:০৭ অপরাহ্ন


বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় ৩২ অভিযুক্তের সবাই খালাস


প্রায় তিন দশক ধরে চলে আসা বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আদভানিসহ অভিযুক্ত ৩২ জনের সবাইকে খালাস দিয়েছেন আদালত। বুধবার ভারতের লক্ষ্ণৌর বিশেষ সিবিআই আদালতে এ মামলার রায় ঘোষণা করেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব। খবর এনডিটিভির প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি, মুরলিমনোহর জোশী, উমা ভারতীর মতো নেতাদের বিরুদ্ধে মসজিদ ভাঙার ষড়যন্ত্র, পরিকল্পনা ও করসেবকদের উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ ছিল। আদালতে মামলার রায় ঘোষণা করতে গিয়ে বিচারক সুরেন্দ্রকুমার জানান, অভিযুক্তদের কারও বিরুদ্ধে উপযুক্ত কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই তাদের বেকসুর খালাস দেওয়া হলো। একইসঙ্গে, বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনা পূর্ব পরিকল্পিত নয় বলেও এ দিন মন্তব্য করেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব। এমনকি তদন্তকারীরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যে প্রমাণ জোগাড় করেছিলেন, সেগুলি বিকৃত করা হয়েছিল বলেও জানান বিচারপতি। মামলায় অভিযুক্ত ৩২ জনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন- সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী লালকৃষ্ণ আদভানি ও উত্তরপ্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং, বিজেপি নেত্রী উমা ভারতী, সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুরলিমনোহর যোশি, বিনয় কাটিহার, সাক্ষী মহারাজ প্রমুখ। এদিন লালকৃষ্ণ আদভানি, মুরলিমনোহর জোশী, উমা ভারতী ও কল্যাণ সিং ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যামে আদালতের সঙ্গে যুক্ত হন। বাকিরা আদালতে হাজির হয়েছিলেন। যেখানে বাবরি মসজিদের অবস্থান সেখানেই রামচন্দ্রের জন্ম হয়েছিল বলে বিশ্বাস করসেবকদের। ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর করসেবকরা বাবরি মসজিদটি ভেঙে দেয়। এরপর দেশ জুড়ে দাঙ্গা শুরু হয়। সরকারি হিসাবমতে, ওই দাঙ্গায় ৩ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়।