২৪ নভেম্বর ২০২০ ১১:৩৫ অপরাহ্ন

২৪ নভেম্বর ২০২০ ১১:৩৫ অপরাহ্ন

নন্দিত ডেস্ক

নভেম্বর ০৯, ২০২০
৪:১২ অপরাহ্ন


চিকিৎসার নামে আটকে রেখে ‘ধর্ষণ’


ময়মনসিংহের নান্দাইলে কবিরাজির নামে আটকে রেখে নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগে মুক্তুল হোসেন (৫৫) নামে এক কবিরাজকে আটক করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ। আটককৃত কবিরাজ উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউপির দত্তপুর গ্রামের মৃত আঃ কাদির মুন্সির পুত্র। থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাগেরহাটের মোল্লারহাট উপজেলার মান্দারতলী গ্রামের ৩৩ বছর বয়সী ঐ নারীর স্বামীর সঙ্গে পারিবারিক বিরোধ চলছিল। ওই নারী স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মিল মহব্বত তৈরি করার জন্য মুক্তুল কবিরাজের কাছে যায়। মুক্তুল কবিরাজ জানায়, এই সম্পর্ক তৈরি করে দিতে হলে তার বাড়িতে আসতে হবে এবং অবস্থান করতে হবে। কবিরাজের কথা মতো ওই নারী গত ২রা নভেম্বর থেকে কানারামপুর বাজারে কবিরাজের বাসায় অবস্থান করছিল। এই সুযোগে কবিরাজীর নামে তাকে ধর্ষণ করে। পরে গত ৮ই নভেম্বর রোববার দুপুরে ওই নারী কৌশলে পালিয়ে এসে নান্দাইল মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে কবিরাজ মুক্তুলকে আটক করে পুলিশ । এ বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানার ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।