১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৩:০২ পূর্বাহ্ন

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৩:০২ পূর্বাহ্ন

নন্দিত ডেস্ক

সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১
৪:০১ অপরাহ্ন


হবিগঞ্জে উচ্ছ্বসিত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা


করোনা মহামারি কাটিয়ে প্রায় দেড় বছর পর খুলেছে বিদ্যালয়গুলো। রোববার প্রথম দিনে হবিগঞ্জের বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। প্রতিটি বিদ্যালয়েই শিক্ষার্থীদের মধ্যে উচ্ছ্বাস ছিল দেখার মত। শিক্ষার্থীদের কাছে পেয়ে আনন্দে উদ্বেলিত ছিলেন শিক্ষকরাও। প্রথম দিনে পড়াশোনার চেয়ে সচেতনতায়ই গুরুত্ব দেয়া হয় বেশি। বিকেজিসি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সকাল সোয়া ৭টায় মর্নিং শিফটের ক্লাস শুরু হয়। এ উপলক্ষে সকাল ৭টার আগে থেকেই শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে উপস্থিত হতে থাকে। প্রথম দিনে দশম, পঞ্চম ও সপ্তম শ্রেণির ক্লাস নেয়া হয়েছে।সপ্তাহের ৬ দিন ক্লাস হবে পঞ্চম, দশম ও এসএসসি পরিক্ষার্থীদের। অন্যান্য শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্লাস হবে সপ্তাহে ১ দিন। প্রথম দিনে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের লাইনে দাঁড় করিয়ে তাদের তাপমাত্রা মাপা হয়। প্রত্যেক ক্লাসে প্রতিটি বেঞ্চে ২ জন করে শিক্ষার্থী বসানো হয়েছে। বিদ্যালয়ে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে যেন শিক্ষার্থীরা চলতে পারে সে জন্য শিক্ষকরাও নজরদারি করেছেন। বিদ্যালয়ে আসতে পেরে উল্লাসের শেষ নেই শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের। এছাড়া হবিগঞ্জ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, জেকে এন্ড এইচকে হাইস্কুল, হবিগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়, হবিগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ সবকটি সরকারি-বেসরকারি ও এমপিওভুক্ত স্কুলে পাঠদান শুরু হয়েছে। জেলায় মোট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ১ হাজার ৩২১টি। এর মধ্যে শুধু প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে ১ হাজার ৫২টি। বাকি ২৬৯টি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের স্কুল, কলেজ, মাদরাসা রয়েছে। হবিগঞ্জ বিকেজিসি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবদুল কবির জানান আমরা কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মনে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ঢুকিয়েছি। এছাড়া তাদের সচেতন করতে বিভিন্ন ধরনের ব্যানার, ফেস্টুন টাঙানো হয়েছে। দীর্ঘদিন পর নিজ বিদ্যালয়ে এসে তারা অনেক খুশি। আমরা শিক্ষকরাও তাদের পেয়ে অনেক আনন্দিত। জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ জানান, নির্দেশনা আসার পর থেকেই প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছিল। স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে সকল প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সফলভাবে প্রথমদিনের পাঠদান সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি আমাদের শিক্ষার্থীরা নিরাপদেই ক্লাস করতে পারবে। উল্ল্যেখ্য, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে গত বছরের ১৭ই মার্চ থেকে সারাদেশের মতো হবিগঞ্জের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়।